পুরুষদের ফ্যাশন ধারণা

পুরুষদের ফ্যাশন ধারণা
January 21, 2022 নাসরিন সুলতানা মুন্নী

পুরুষদের ফ্যাশন ধারণা

এখন সকলেই কম বেশি গ্লোবাল স্টাইল স্টেটমেন্টের ব্যাপারে সচেতন। বর্তমানে স্মার্টফোনের পিক্সেল যত বাড়ছে, ততো বেশি মানুষ নিজের পোশাক পরিচ্ছদ ও লাইফস্টাইল সম্পর্কে সচেতন হয়ে উঠছে। সব মানুষ  ফ্যাশন বা স্টাইল সম্পর্কে সচেতন থাকে তা নয় তবে বেশির ভাগেরই চাওয়া থাকে আমাদের সবাই স্মার্ট বলুক। আবার আপনি যেমন আছেন তাতে আপনি সন্তুষ্ট হলেও আপনার প্রিয়জন সন্তুষ্ট নাও হতে পারে। তাই ফ্যাশন এবং স্টাইলের এ যুগে তাল মিলিয়ে নিজেকে পরিবর্তন করে নিতে অনুসরণ করতে পারেন কিছু সাধারণ টিপস।

 সঠিক পোশাক নির্বাচন করুন

সঠিক পোশাক নির্বাচন একজন স্টাইলিশ ব্যক্তির জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।স্টাইলিশ হতে হলে আপনাকে প্রতিদিন নতুন ও দামী পোশাক পড়তে হবে এমন নয় বরং এর পরিবর্তে আপনার পোশাক পরিষ্কার রাখা জরুরি। এছাড়া পোশাকের ফিটিংও গুরুত্বপূর্ন। জামার ফিটিং যদি পারফেক্ট হয় তাতে নিজেরও ভিতর থেকে কমফোর্টেবল লাগে যা এপিয়েরেন্সকে স্টাইলিশ করে তুলতে সাহায্য করবে। সাথে প্যান্ট, জুতা, রোদচশমা, বেল্ট, ঘড়ি, টাই এর বিষয়টা খেয়াল রাখুন।স্থান অনুযায়ী পোশাক নির্বাচন করুন। আপনি বন্ধুদের আড্ডায় যে পোশাক পড়ে যাবেন তা অফিসের জন্য উপযোগী হবে না। আবার অফিসের ফর্মাল গেটাপ কোনো গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে মানাবে না। সেজন্য সবসময়  সচেতন থাকতে হবে কোন জায়গাতে কোন ড্রেসটা নির্বাচন করবেন।

 

ভালো জুতায় ইনভেস্ট করুন

জুতাকে পোশাকের খুব সাধারণ একটা অংশ বলে মনে হলেও তা নয়। এক জোড়া চমৎকার জুতা যেমন সুরুচির পরিচয় বহন করে একই সাথে তা ব্যক্তিত্বেরও প্রকাশ করে। পোশাকের অংশ হিসেবে জুতার আলাদা মনস্তাত্ত্বিক এক তাৎপর্য রয়েছে। বিখ্যাত ফ্রেঞ্চ ডিজাইনার ক্রিশ্চিয়ান লুবুতিন বলেছিলেন – ‘ জুতা আপনার শরীরী ভাষার ও ব্যক্তিত্বের পরিচয় দেয়। এটা আপনাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে উদ্দীপ্ত করে।তাই ফরম্যাল,ক্যাজুয়াল বা বুট যেটাই পরুন না কেন উজ্জ্বল এবং পরিষ্কার জুতা পড়ুন।

হেয়ার রিফ্রেশ করুন

সুন্দর করে কাটা চুল আপনার লুকটাই বদলে দিবে। যখন আপনার চুল ভালো থাকবে তখন আপনার সবকিছুই ঠিক মনে হবে। তাই মুখের গড়ন  বুঝে চাহিদামতো ছাঁট ও ট্রিম করিয়ে নিলে স্টাইলিশ দেখাবে।

 

সুগন্ধির দিকে খেয়াল রাখুন

খুব বেশি তীব্র নয় এমন  সুগন্ধি ব্যবহার করতে পারেন। এমন  কিছু ব্যবহার করা উচিত যেটা আপনার ন্যাচারাল সেন্টের সাথে যায়। সুগন্ধির ব্যবহার এমন হওয়া উচিত যেন আপনার পাশে এলে কেউ ঘ্রাণ পায়। এটা এমন হওয়া উচিত যেন শো- অফ মনে না হয়, আবার আপনার আত্মবিশ্বাসটাও বুঝা যায়।

আত্নবিশ্বাসী হন নিজের স্টাইল নিয়ে

আপনার ব্যক্তিত্বে যদি দৃঢ়তা থাকে তবে আপনি যা-ই পরুন না কেন, আপনাকে স্টাইলিশ দেখাবে। তাই নিজের সাজসজ্জার ব্যাপারে বিশ্বাসী হন। আপনার হাঁটা-চলা, কথা বলার ধরন সবই আপনার ব্যক্তিত্বের প্রতিফলন। তাই নিজের আচার-আচরণ, চালচলনের প্রতি খেয়াল রাখুন। কারো সাথে কথা বলার সময় চোখে চোখ রেখে কথা বলুন।  অন্যের সাথে সবসময় হাসিমুখে কথা বলুন ও আঞ্চলিকতার টান থাকলে এড়িয়ে চলুন। আপনি যদি আত্নবিশ্বাসী হন তবে যে কোন ড্রেসেই আপনাকে পারফেক্ট লাগবে।

Comments (0)

Leave a reply

Your email address will not be published.

*